ঢাকাসোমবার , ৯ অগাস্ট ২০২১
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আর্ন্তজাতিক
  5. ইসলাম
  6. ক্রিকেট
  7. খুলনা
  8. খেলাধুলা
  9. চট্রগ্রাম
  10. জাতীয়
  11. জানা অজানা
  12. টিপস
  13. ঢাকা
  14. তথ্য ও প্রযুক্তি
  15. দুর্ঘটনা
300x250
সর্বশেষ সবখবর

জীবন বাঁচাতে লাইফ জ্যাকেট: ঠিকভাবে পরেছেন তো?

বর্ণমেলা নিউজ
অগাস্ট ৯, ২০২১ ৪:১৯ অপরাহ্ন
Link Copied!

লাইফ জ্যাকেট পরলে পানিতে আপনার জীবন বাঁচবে। কিন্তু আপনি কি জানেন সঠিকভাবে লাইফ জ্যাকেট বেছে নেয়ার উপায় কিংবা সঠিকভাবে পরার পদ্ধতি? জেনে নেয়া খুব জরুরী।

Advertisements

গত কয়েক মাসে পানিঘটিত দুর্ঘটনার যে সংবাদগুলো সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে তাতে অনেকের মনেই প্রশ্নটি এসেছে, লাইফ জ্যাকেট আসলে পানিতে ডুবে যাওয়া থেকে কতটুকু সহযোগিতা করে একজন মানুষকে? উত্তরটা হলো, হ্যাঁ এটা মানুষকে সহযোগিতা করে পানিতে দুর্ঘটনা ক্রমে পড়ে গেলে লম্বা সময় ভেসে থাকতে কিন্তু এর জন্য চাই সঠিক লাইফ জ্যাকেট বাছাই ও সঠিক পদ্ধতিতে সেটা পরা।

লাইফ জ্যাকেট আসলে কী জিনিস? এটা জ্যাকেট এর মতো, যা হালকা পানিতে ভেসে থাকে এরকম কিছু দিয়ে ভরা থাকে। আপনি পানিতে যখন নামেন, এটা জ্যাকেট এর মতো গায়ে জড়ানো থাকে এবং সেটার কারণে আপনি ভেসে থাকতে পারেন বাড়তি কোনো কষ্ট না করেই। বিভিন্ন জলযানে এই জিনিসটা রাখা বাধ্যতামূলক। যেকোনো সময় জলযানে দুর্ঘটনা ঘটতে পারে, আর এরকম ঘটনায় মানুষ পানিতে পড়ে মারা যেতে পারে। বাংলাদেশে এরকম দুর্ঘটনার সংখ্যা কম নয়।

বাংলাদেশে এই ধরনের লাইফ জ্যাকেট পাওয়া যায়। ছবি: সংগৃহীত।  

কীভাবে বাছাই করবেন সঠিক সাইজের লাইফ জ্যাকেট?

সবার জন্য সব সাইজের লাইফ জ্যাকেট কার্যকরী হবে না। ছোট আকারের লাইফ জ্যাকেট যেমন আপনাকে ভাসিয়ে রাখতে পারবে না, ঠিক সেভাবে বড় আকারের লাইফ জ্যাকেট আপনার শরীরে ঠিক ভাবে ফিট হবে না, পানির মাঝে থাকার সময় খুলে গিয়ে আপনার জীবনকে ঝুঁকির মুখে ফেলতে পারে। তাই আপনি যখন লাইফ জ্যাকেট কিনবেন, তখন অবশ্যই সেটা গায়ে দিয়ে, ঠিকঠাক ভাবে ফিট হয় কি না তা দেখে নেবেন।

একটা সাধারণ জামা কিনতে গেলে আমরা সেটা ফিট না হলে কিনি না, তাহলে লাইফ জ্যাকেট এর মতো অত্যন্ত জরুরী জিনিস কেনার সময় কেন আমরা এই বিষয়টা খেয়াল রাখব না? আপনি যখন নিজের লাইফ জ্যাকেট সংগ্রহ করছেন বা কিনছেন, তখন দেখে নেবেন যে সেটা আপনার সাথে ফিট করে কি না। লাইফ জ্যাকেট গায়ে দিয়ে আপনি মুক্তভাবে নড়াচড়া করতে পারেন কি না, হাত ঠিকভাবে নাড়াতে পারেন কি না।

আকারে বড় লাইফ জ্যাকেট পরলে সেটা খুলে যেতে পারে যেকোনো সময়ই। ছবি: সংগৃহীত।

কীভাবে সঠিক পদ্ধতিতে পরবেন লাইফ জ্যাকেট?

লাইফ জ্যাকেট সঠিকভাবে পরার নিয়ম আছে। সবার আগে জরুরী হলো যে সেটা আপনাকে ফিট করে কি না সঠিকভাবে। সেই বিষয়টা নিশ্চিত হওয়া গেলে এবারে জিনিসটা গায়ে দিন। সাথে থাকা স্ট্র্যাপ ও লক গুলো ব্যবহার করে আটকে নিন। স্ট্র্যাপগুলো টেনে টেনে লাইফ জ্যাকেটটা নিজের শরীরে টাইট ভাবে বেঁধে নিন, যেন কোনোভাবেই এটা শরীর থেকে খুলে চলে না আসে। টাইট করে বাঁধার সময় খেয়াল রাখুন যেন এত বেশি টাইট না হয়ে যায় যেন আপনার দম নিতে কষ্ট হয় কিংবা চলাফেরা বা হাত নাড়াতে সমস্যা না হয়। আপনি পানিতে পড়ে গেলে হাত ব্যবহার করতে হবে সাঁতার কাটার জন্য। তাই সেগুলো ঠিকভাবে নাড়াতে না পারলে আপনি নিরাপদ জায়গায় যেতে পারবেন না।

সাঁতার জানলেও কী দরকার হয় লাইফ জ্যাকেট?

উত্তরটা হলো, হ্যাঁ। যারা সাঁতার জানে, তাদের জন্যও লাইফ জ্যাকেট জরুরী। আপনি যখন কোথাও গোসল করতে নামছেন, কিংবা স্রেফ সাঁতার কাটার জন্য নামছেন, তখন দরকার নেই এটার। আপনি আপনার সক্ষমতার বিষয়ে জেনে শুনেই পানিতে নামছেন। ঠিক কতক্ষণ সাঁতার দিলে আপনি ক্লান্ত হবেন না, কতদূর গেলে আপনি ফিরে আসতে পারবেন, এটা একজন নিয়মিত সাঁতারু জেনে থাকেন এবং সেভাবে তিনি সাবধানতা অবলম্বনও করেন, তাই নিরাপদও থাকেন।

কিন্তু চিন্তা করুন, আপনি নৌকায় করে কোথাও যেতে যেতে দুর্ঘটনার কারণে পানিতে পড়েছেন। কোনো রকম পূর্ব প্রস্তুতি ছাড়াই আপনি পানিতে পড়েছেন। আপনার গায়ে আছে জামা-কাপড়, পানিতে ভিজে সেগুলোও হয়ে গেছে ভারী। এরকম সময়ে সাঁতার জানলেও আপনি কতক্ষণ পানিতে ভেসে থাকতে পারবেন সেটা আলোচনার বিষয় হতে পারে। আর দুর্ঘটনার জায়গা যদি হয় নদী বা বড় লেক, তাহলে সাঁতার কেটে তীরে পৌঁছবেন, এতটা শারীরিক সক্ষমতা খুব বেশি মানুষের থাকে না। তাই এরকম যে কোনো পরিস্থিতিতে লাইফ জ্যাকেট আপনার বেঁচে থাকার সুযোগ বাড়িয়ে দেয় অনেকখানি। আপনি কোনোরকম বিশেষ কষ্ট ছাড়া ভেসে থাকতে পারেন অনেকক্ষণ আর ততক্ষণে উদ্ধার পাবার একটা ব্যবস্থা হয়েই যেতে পারে।

সুতরাং সাঁতার জানুন কিংবা না জানুন, নৌযান কিংবা ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় গেলে অবশ্যই সাথে রাখতে হবে একটি লাইফ জ্যাকেট ও সেটা সঠিকভাবে ব্যবহারও করতে হবে। নৌকায় উঠে পাশে লাইফ জ্যাকেট খুলে রাখলে তাতে কোনো উপকার হবে না। কিনবার সময় অবশ্যই দেখে নেবেন জিনিসটা আপনার সাথে ফিট করে কি না, এর বাকলসগুলো ঠিকভাবে সেট করা যায় কি না। জীবন মৃত্যুর বিষয়ে কোনো ছাড় নেই তাই নিশ্চিত হতেই হবে।

সম্পাদনা: ড. জিনিয়া রহমান।

Advertisements

বর্ণমেলা প্রিন্টার্স এন্ড ক্রেস্ট গ্যালারী আমাদের সেবা সমূহ:- ক্রেস্ট, সম্মাননা স্মারক, মগ, মেডেল, আইডি কার্ড, ভিজিটিং কার্ড, ক্যালেন্ডার, পোস্টার, পিভিসি ব্যানার, ষ্টিকার সহ সকল প্রকার ছাপার কাজ করা হয় এবং সকল প্রকার সীল তৈরি ও যে কোন অনুষ্ঠানের গেঞ্জী, টিশার্ট প্রিন্ট করা হয়। ঠিকানা: সিডষ্টোর বাজার, ভালুকা, ময়মনসিংহ, মোবাঃ ০১৭১৫২৫৩৩৮৫, E-mail: bornamela03@gmail.com