ঢাকারবিবার , ২৩ জুন ২০১৯
  1. অন্যান্য
  2. অপরাধ
  3. অর্থনীতি
  4. আর্ন্তজাতিক
  5. ইসলাম
  6. ক্রিকেট
  7. খুলনা
  8. খেলাধুলা
  9. চট্রগ্রাম
  10. জাতীয়
  11. জানা অজানা
  12. টিপস
  13. ঢাকা
  14. তথ্য ও প্রযুক্তি
  15. দুর্ঘটনা
300x250
সর্বশেষ সবখবর

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে শতাধীক গান করেছেন কারারক্ষী জাহাঙ্গীর আলম

বর্ণমেলা নিউজ
জুন ২৩, ২০১৯ ১:১৭ অপরাহ্ন
Link Copied!

60904486_616688842139092_5877592199738163200_nপ্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভালবেসে ১৩০ এর অধিক গান গেয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন কারারক্ষী জাহাঙ্গীর আলম,আজ তার জীবনের গল্প নিয়ে তার পাশে দাড়িয়েছি, তার গান গুলো প্রধানমন্ত্রী পর্যন্ত পৌঁছে দিতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছি।
যিনি অসংখ্য গান লিখেছেন কিন্তু দারিদ্র্যের কারনে আটকে গেছে তার স্বপ্ন , খালি গলায় গান করেন মিউজিক বিহীন, কারন গিটার কিনার সামর্থ তার নাই। এমন কি ইচ্ছাপূরণ এর জন্য চলে তার আপ্রাণ চেষ্টা , তিনি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার গান গুলো প্রচার করতে থাকেন। একটা সময়ে নজরে আসেন এবং তার এক সাক্ষাৎকার নেয়া হয়, তার সাথে মুঠোফোন মেসেঞ্জার ফেসবুকে কথা হয়। তার জীবন সম্পর্কে জানতে চাইলে আবেগাপ্লুত হয়ে বলেন, নাম মোঃ জাহাঙ্গীর আলম,পিতা বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারী, নওগাঁ জেলার সদর থানা তিলকপুর গ্রামে ১৯৮৬ সালে জন্মগ্রহণ করেন।
ছোট থেকে নিজ পিতা, দাদা দাদী এমন কি গ্রামের বয়স্ক মুরব্বীদের নিকট আগ্রহী হয়ে মনযোগ দিয়ে রক্তক্ষয়ী সেই ৭১ এর দিনগুলোর কথা শুনতেন আর মনে মনে ভাবতেন…. আমি যদি দেশের একজন লড়াকু সৈনিক হতে পারতাম, যদি একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা হতে পারতাম, যদি নিজ কানে শুনতে পেতাম সেই মনোহর মার্দব শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অগ্নিময় কন্ঠের আওয়াজ, এবারের সংগ্রাম মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম দিন যায় মাস যায় বছর পেরিয়ে যৌবনে এসে বুঝতে পারলাম, বঙ্গবন্ধু নেই আছে তার আদর্শ, আর আমি যদি তার আদর্শে জীবন কে পরিচালিত করি নিশ্চয় দেশ আমার দ্বারা উপকৃত হবে।
গরীব পরিবারের বড় সন্তান আমি, তেমন লেখাপড়া করার সুযোগ না হওয়াই এইচ,এস,সি পাশ করার পর যোগ দিলাম বাংলাদেশ জেল বাহিনীর কারারক্ষী পদে। চলতে থাকে কর্মজীবন কিন্তু মনে কেন জানি তৃপ্তিহীন কিছু কাজ করে।
মনো মানব চিৎকার করে বলে জাহাঙ্গীর, জাতির পিতা নেই তাতে কি, তার মহীয়সী কন্যা তার পবিত্র রক্ত আজও বেঁচে আছে, তাকে ভালবাসলেই বঙ্গপিতাকে ভালবাসা যাবে। জেগে ওঠে আমার মস্তিষ্কের সকল ঘুমিয়ে থাকা রক্তশিরা,আটপরদি ভাবতে থাকি, কেমন করে আমি প্রকাশ করি জননী শেখ হাসিনাকে আমি জীবনের চেয়েও বেশী ভালবাসি স্বপ্ন দেখি আমি দৈনিক, জাতির পিতার এক সৈনিক, দেহে আছে বীরের রক্ত আমি শেখ হাসিনার এক ভক্ত এমন ভাবনায় মনে আসে বিভিন্ন ছন্দ ভেসে আসে সুর, তখন শুরু করি শেখ হাসিনাকে নিয়ে গান লেখা।
এক এক করে গান লিখতে লিখতে শতাধিক গান, অজস্র কবিতা সৃষ্টি করি জননেএী শেখ হাসিনাকে নিয়ে। যা আজ অবদি পৃথিবীর কোন দেশের দেশ প্রধানকে নিয়ে এককভাবে কোন গীতিকার সুরকার শিল্পী শতাধিক গান লিখতে পারে নাই।
এই প্রথম আমি ভালবেসে ইতিহাস গড়েছি শেখ হাসিনাকে নিয়ে শতাধিক গান করে, প্রথম গান মিউজিকসহ প্রকাশ করার খুব ইচ্ছে হয়, গিয়েছিলাম স্থানীয় কিছু শিল্পীগোষ্ঠীর নিকট, গানের কথাগুলো দেখে তারা মুগ্ধ হয় এবং বলে গানগুলো করব বিনিময়ে মিউজিক খরচ বাবদ প্রতিটি গানের জন্য, পাঁচ হাজার করে টাকা দিতে হবে কথাশুনে ভেঙে যায় তিলেতিলে গড়া আমার স্বপ্নের পাহাড়, থেমে যায় পথ চলা,আমি ত অসহায় গরিব কোথায় পাবো এতো টাকা। বাধ্য হয়ে অক্লান্ত ভাবনায় স্বিদ্ধান্ত নিলাম, আজ থেকে নিজের গান নিজেই গাইব, আর প্রচার করব ফেসবুকের মাধ্যমে।
এভাবে গাইতে গাইতে শেখ গীতিকার হিসাবে পরিচিত লাভ করি নিজ কর্মস্থলে। আজ সৃষ্টিকর্তার নিকট প্রার্থনা করি, আমার জন্ম হয়েছে শেখ হাসিনাকে নিয়ে গান তৈরী করার জন্য, মরনের আগ পর্যন্ত শেখ হাসিনা নিয়ে গান লিখে যাব। তার পাশাপাশি প্রবাসী ভাইদেরকে নিয়ে গান লিখে যাব।
গীতিকার হিসাবে গান করার, গান লিখবার সুযোগ দিয়ে, আমাকে যেন বঞ্চিত করো না হয় আমি যেন কারারক্ষীর দায়িত্ব পালনের সাথে গান গাইতে পারি আমাকে সুযোগ করে দেওয়া হয় ।
মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমার এই আবেদন। আমি সেলিব্রেটি ভাইরাল হতে চাই না আমি ১৬ কোটি মানুষের ভালোবাসা চাই , মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনি আমার মা আপনি শুধু আমার মা নন ১৬ কোটি মানুষের মা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনাকে নিয়ে গান করায় আমাকে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিন দিন আগে সাসপেন্ড করা হয়েছিল, ১৬ কোটি মানুষের ভালোবাসায় সাসপেন্ড প্রত্যাহার করা হয় ।
আমি গান পাগল মানুষ, আমি প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে আরো গান গাইতে চাই, আমি স্বাধীনভাবে বাঁচতে চাই ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার কাছ থেকে আমাকে গালমন্দ শুনতে হয়েছে, তারপরেও আমি থেমে নেই, আমি চালিয়ে যাচ্ছি।
কারারক্ষী জাহাঙ্গীর এর কাছে জানতে চাওয়া হয়। আপনি প্রধানমন্ত্রীর কাছে কি চান। উত্তরে তিনি বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রী আপনার কাছে আবেদন,আমি পদোন্নতি চাই না আমি স্বাধীনভাবে বাঁচতে চাই,গান কে ভালবাসি স্বাধীনভাবে গান গাই চাই।
প্রবাসী ভাইদের কথা জানতে চাইলে তিনি আরো বলেন, প্রবাসী ভাইদের এয়ারপোর্টে আসলে হেনস্থার শিকার হন,তিনি আরো বলেন মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে আকুল আবেদন ,প্রবাসী ভাইদের জন্য আলাদা এয়ারপোর্ট এর ব্যবস্থা করেন ,আমি আপনার কাছে চির কৃতজ্ঞ থাকব।
https://www.facebook.com/jahanjer.alom.7/videos/2297468493904375/
Advertisements

বর্ণমেলা প্রিন্টার্স এন্ড ক্রেস্ট গ্যালারী আমাদের সেবা সমূহ:- ক্রেস্ট, সম্মাননা স্মারক, মগ, মেডেল, আইডি কার্ড, ভিজিটিং কার্ড, ক্যালেন্ডার, পোস্টার, পিভিসি ব্যানার, ষ্টিকার সহ সকল প্রকার ছাপার কাজ করা হয় এবং সকল প্রকার সীল তৈরি ও যে কোন অনুষ্ঠানের গেঞ্জী, টিশার্ট প্রিন্ট করা হয়। ঠিকানা: সিডষ্টোর বাজার, ভালুকা, ময়মনসিংহ, মোবাঃ ০১৭১৫২৫৩৩৮৫, E-mail: bornamela03@gmail.com
https://www.allbanglanewspaper.co/en/